সিজদা থেকে ইমামের আগে উঠে গেলে কি নামাজ নষ্ট হয়ে যাবে?

শেয়ার

নামাজে ইমামের অনুসরণ করা মুক্তাদি মুসল্লিদের জন্য ওয়াজিব। প্রত্যেকটি কাজেই তাকে অনুসরণ করতে হবে। ইমাম যখন রুকু বা সিজদায় যান, তখন রুকু বা সিজদায় যেতে হবে, যখন দাঁড়ান তখন দাঁড়াতে হবে। ইমামের আগে রুকু বা সিজদায় চলে যাওয়া অথবা ইমামের আগেই রুকু বা সিজদা থেকে দাঁড়িয়ে যাওয়া মাকরুহ তাহরিমি বা হারামের কাছাকাছি পর্যায়ের অপছন্দনীয় কাজ।

রাসুল সা. বলেছেন,
إِنَّمَا جُعِلَ الإِمَامُ لِيُؤْتَمَّ بِهِ، فَإِذَا كَبَّرَ فَكَبِّرُوا، وَإِذَا رَكَعَ فَارْكَعُوا، وَإِذَا سَجَدَ فَاسْجُدُوا
ইমাম নির্ধারণ করা হয়েছে তার অনুসরণ করার জন্য। ইমাম তাকবির বললে তোমরাও তাকবির বলবে, তিনি রুকু করলে তোমরাও রুকু করবে। তিনি সিজদা দিলে তোমরাও সিজদা করবে। (সহিহ বুখারি: ৩৭৮)

ইমামের আগে সিজদা থেকে উঠে যাওয়ার ব্যাপারে সাহাবিদের সাবধান করে আরেকটি হাদিসে রাসুল (সা.) বলেছেন,
‏ أَمَا يَخْشَى الَّذِي يَرْفَعُ رَأْسَهُ قَبْلَ الإِمَامِ أَنْ يُحَوِّلَ اللَّهُ رَأْسَهُ رَأْسَ حِمَارٍ ‏
ইমামের আগে সিজদা হতে যে ব্যাক্তি মাথা তোলে, সে কি ভয় করে না যে, আল্লাহ তার মাথার আকৃতি গাধার মাথার মত করে দিতে পারেন। (সহিহ মুসলিম: ৪২৭)

সুতরাং নামাজে পরিপূর্ণরূপে ইমামের অনুসরণ করতে হবে। সিজদা থেকে ইমামের আগে মাথা ওঠানোর ব্যাপারে বিশেষ সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে।

কেউ যদি ভুল করে সিজদা থেকে ইমামের আগে মাথা তুলে ফেলে, তাহলে ভুল বোঝার পর আবার সিজদায় চলে যাবে এবং ইমামের সাথে সিজদা থেকে উঠবে। ইমাম যদি আবার সিজদায় যাওয়ার আগেই উঠে যান অথবা কেউ যদি অজ্ঞতাবশত অর্থাৎ শরিয়তের এ নির্দেশনার ব্যাপারে না জানার কারণে আর সিজদায় না যায়, তাহলেও নামাজ শুদ্ধ হয়ে যাবে।

কিন্তু কেউ যদি শরিয়তের বিধান জানার পরও ইচ্ছাকৃত ইমামের আগে মাথা তোলে এবং আর সিজদায় না যায়, তাহলে তার নামাজ নষ্ট হয়ে যাবে।

 

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

সর্বশেষ